মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সিটিজেন চার্টার

                                       

 

  সিটিজেন চার্টার

( নাগরিক অধিকার সনদ )

‘‘ গ্রাহক সেবা নির্দেশিকা ’’

টেলিফোন /মোবাইল নম্বরসমূহঃ

ক্রঃ নং

          অফিসের নাম

টেলিফোন / মোবাইল ফোন নম্বর

০১

সদর দপ্তরস্থ অভিযোগ কেন্দ্র

০৭৪১৬২৫৬৬

০১৭৬৯৪০১৫২৫

০২

রানীনগর জোনাল অফিস অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫২৬

০৩

আত্রাই সাব জোনাল অফিস অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫৪১

০৪

বদলগাছী সাব জোনাল অফিস অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫২৭

০৫

মান্দা জোনাল অফিস অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫৪২

০৬

পাহাড়পুর অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫২৮

০৭

আবাদপুকুর অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫২৯

০৮

পাঁজরভাঙ্গা অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫৩০

০৯

নিয়ামতপুর জোনাল অফিস অভিযোগ কেন্দ্র

০৭৪২৭৫৬০৩৯

০১৭৬৯৪০১৫৩১

১০

কাপাসটিয়া অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫৩২

১১

চৌবাড়ীয়া অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫৩৩

১২

দেলুয়াবাড়ী অভিযোগ কেন্দ্র

০৭৪২৬৭৫০৫৬

০১৭৬৯৪০১৫৩৪

১৩

দুবলহাটী অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫৩৫

১৪

চৌমাশিয়া অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫৩৬

১৫

সাপাহার অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫৩৮

                            

                                                      বৈদ্যুতিক তার ও ট্রান্সফরমারের চোর জাতির  শত্রু, এদের প্রতিরোধ করুন।

 

 

গ্রাহকের জ্ঞাতব্য বিষয়

*       পিক-আওয়ারে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হোন। আপনার সাশ্রয়কৃত বিদ্যুৎ অন্যকে আলো জ্বালাতে সহায়তা করবে।

*       সংযোগ বিচ্ছিন্ন এড়াতে নিয়মিত বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করুন এবং সারচার্জ পরিশোধের ঝামেলা থেকে মুক্ত থাকুন।

*       ৮০% বিদ্যুৎ বিল সাশ্রয়কল্পে মানসম্মত ‘‘এনার্জি সেভিং বাল্ব (CFL)’’ও বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম ব্যবহার করুন।

         *       টিউব লাইটে Electronic Ballastব্যবহার করে বিদ্যুৎ সাশ্রয় করুন।

*       বিদ্যুৎ একটি মূল্যবান জাতীয় সম্পদ। দেশের বৃহত্তর স্বার্থে এই সম্পদের সুষ্ঠু ও পরিমিত ব্যবহারে ভূমিকা রাখুন।

*       বৎসরান্তে পবিস হতে আবাসিক গ্রাহকগণকে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের প্রত্যয়ন পত্র প্রদান করা হয় এবং অন্যান্য গ্রাহকগণকে তাদের আবেদন মোতাবেক বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের প্রত্যয়ন পত্র প্রদান করা হয়।

*       মিটার রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব আপনার এর সঠিক সুষ্ঠু অবস্থা ও সীল সমূহের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন।

*       লোড শেডিং সংক্রান্ত তথ্য সংশ্লিষ্ট এলাকার আওতাধীন কন্ট্রোল রুম/ অভিযোগ কেন্দ্র থেকে জানা যাবে।

*       বিদ্যুৎ এর অবৈধ ব্যবহার থেকে নিজে বিরত থাকুন ও অন্যকে নিবৃত করুন। বিদ্যুৎ চুরি ও এর অবৈধ ব্যবহার রোধে আপনার জ্ঞাত তথ্য                     ‘‘ অভিযোগ কেন্দ্র’’ এ অবহিত করে সহযোগিতা করা আপনার দায়িত্ব।

*       একটি সংঘবদ্ধ অসাধু চক্র চালু লাইন হতে ট্রান্সফরমার/বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি/তার চুরির সাথে জড়িত। সুতরাং আপনার এলাকার উপরিউক্ত চুরি রোধে তথ্য  দিয়ে সহযোগিতা করুন।

*       ২ কিঃ ও এর উর্দ্ধে গ্রাহকগণের সরকারী নীতিমালা অনুযায়ী সোলার প্যানেল স্থাপন করতে হবে।

                            বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্নকরণ এড়াতে যথাসময়ে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করুন।

 

 

বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য জামানতের পরিমান

          নতুন সংযোগের ক্ষেত্রে নিম্নোক্তহারে নিরাপত্তা জামানত প্রযোজ্য হবে ।

 

ক্রমিক নং

          গ্রাহক শ্রেণী

   অনুমোদিত লোড     সীমা  (কিঃ ওঃ)

জামানতের হার (টাকা)
০১

এলটি- এ (আবাসিক)

এলটি-বি (সেচ,কৃষি কাজে ব্যবহৃত পাম্প)

২(দুই) কিঃ ওঃ পর্যন্ত ৪০০.০০(চারশত)
০২

এলটি- এ (আবাসিক)

এলটি-বি (সেচ,কৃষি কাজে ব্যবহৃত পাম্প)

২(দুই) কিঃ ওঃ এর বেশি ৬০০.০০ (ছয়শত)
০৩

এলটি- সি১(ক্ষুদ্র শিল্প), এলটি-সি২(নির্মাণ),

এলটি-ডি১(শিক্ষা,ধর্মীয়ও দাতব্য প্রতিষ্ঠানসহ হাসপাতাল)এলটি-ই (বাণিজ্যিক ও অফিস)

সকল ৮০০.০০

 

 

অস্থায়ী বিদ্যুৎ সংযোগ সংক্রান্তঃ-

 

মেলা, সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান, কমপ্লেক্স নির্মান, নির্মান কাজ এবং বানিজ্যিক কার্যক্রমের নিমিত্তে  অস্থায়ী বিদ্যুৎ সংযোগ গ্রহন করতে পরবেন।

সংযোগটির ধরন শিল্প শ্রেণীর হবে এবং ডিমান্ড ও সার্ভিস চার্জ প্রযোজ্য হবে ।

মালামালের মূল্য বাবদ ১১০% হারে মূল্য পরিশোধ করতে হবে । তবে ব্যবহারের উপযোগী মমালামাল ফেরৎ সাপেক্ষে পরবর্তীতে ১১০% মালামালের  মূল্য ফেরৎ প্রদান করা হবে ।

ট্রান্সফরমার স্থাপন ও অপসারন  খরচ এবং ট্রান্সফরমার ভাড়া (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)  জমা প্রদান করতে হবে।

দৈনিক ৮ ঘন্টা বিদ্যুৎ ব্যবহার হবে মর্মে আবেদনকৃত লোড অনুযায়ী  অগ্রীম বিদ্যুৎ বিল জমা প্রদান করতে হবে।সংযোগ অপসারণের পর ব্যবহৃত বিদ্যুৎ বিলের অর্থ হতে জমাকৃত অর্থ সমন্বয় করা হবে ।

যদি কোন কারন বশতঃ অস্থায়ী সংযোগ প্রদান সম্ভব না হয় সেক্ষেত্রে উপযুক্ত কারন জানিয়ে গ্রাহককে পত্রের মাধ্যমে জানানো হবে।

 

লোড পরিবর্তন বা লোড বৃদ্ধি করনঃ-

 

লোড বৃদ্ধির জন্য নির্ধারিত আবেদন ফরমে সমীক্ষা ফি জমা দিয়ে আবেদন করতে হবে।

লোড বৃদ্ধির চুক্তিপত্র সম্পাদন করতে হবে।

লোড বৃদ্ধির প্রাক্কলন সহ বৃদ্ধিকৃত লোডের জন্য অতিরিক্ত জামানত জমা প্রদান করতে হবে।

প্রাক্কলন ও জামানতের অর্থ জমাদানের পর প্রয়োজনীয় ওয়্যারিং সম্পন্নের রিপোর্ট প্রাপ্তি সাপেক্ষে পরবর্তী ৭(সাত) দিনের মধ্যে মালামাল প্রাপ্তি সাপেক্ষে লোড বৃদ্ধির কার্য সম্পাদন করা হবে।

যদি কোন কারন বশতঃ লোড বৃদ্ধি করা করা সম্ভব না হয় সেক্ষেত্রে উপযুক্ত কারন জানিয়ে গ্রাহককে পত্র দিয়ে জানানো হবে।

 

গ্রাহকের নাম বা মালিকানা পরিবর্তন পদ্ধতিঃ-

 

নাম বা মালিকানা পরিবর্তনকারী সমিতির জেনারেল ম্যানেজার/ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার বরাবরে সাদা কাগজে আবেদন করতে পারবেন।

নাম বা মালিকানা পরিবর্তনের জন্য রেজিষ্ট্রিকৃত দলিরের ফটোকপি জমা প্রদান করতে হবে ।

সদ্যতোলা পাসপোর্ট সাইজের ২ কপি সত্যায়িত ছবি জমা দিতে হবে।

ইউপি/পৌরসভা চেয়ারম্যান কর্তৃক নাগরিকত্বের সনদপত্র দাখিল করতে হবে।

প্রযোজ্য ক্ষেত্রে চুক্তিপত্র সম্পাদন করতে হবে।

নাম বা মালিকানা পরিবর্তন ফি জমা প্রদান করতে হবে।

সদস্য ফি বাবদ ৫০/= টাকা জমা প্রদান করতে হবে।

প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ বিলের অথবা সেচ অগ্রীম জামানত জমা প্রদান করতে হবে।

এ সংক্রান্ত যাবতীয় অর্থ সমিতির ক্যাশ কাউন্টারে জমা প্রদানের পর নাম বা মালিকানা পরিবর্তন করা হবে।

 

গ্রাহকের মৃত্যুর কারনে নাম বা মালিকানা পরিবর্তন পদ্ধতিঃ-

 

উপযুক্ত কারণ জানিয়া নাম বা মালিকানা পরিবর্তনের জন্য সমিতির জেনারেল ম্যানেজার/ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার/ সহঃ জেনারেল ম্যানেজার(ও এন্ড এম) বরাবর লিখিত আবেদন করতে হবে।

ইউপি চেয়ারম্যান/পৌরসভা মেয়র কর্তৃক গ্রাহকের মৃত্যুর সনদপত্র দাখিল করতে হবে।

ইউপি চেয়ারম্যান /পৌরসভা মেয়র কর্তৃক ওয়ারিশন সনদপত্র দাখিল করতে হবে।

ওয়ারিশগনের (যদি থাকে) লিখিত না দাবী পত্র দাখিল করতে হবে।

প্রযোজ্য ক্ষেত্রে চুক্তিপত্র সম্পাদন করতে হবে।

সদস্য ফি বাবদ ৫০/= টাকা জমা প্রদান করতে হবে।

নাম বা মালিকানা সংক্রান্ত পরিবর্তন ফি জমা প্রদান করতে হবে।

প্রয়োজন অনুযায়ী বিদ্যুৎ বিলের জামানত জমা প্রদান করতে হবে (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।

 

‘‘নতুন সংযোগের জন্য দলিলাদি’’

 

নতুন সংযোগের জন্য প্রাক্কলন জমাদানের সাথে নিম্মোক্ত দলিলাদি দাখিল করতে হবে ।

 

ক) অফ লাইনে যে সকল কাগজপত্র জমা দিতে হবেঃ

      i. আবেদনকারীর স্বাক্ষর সম্বলিত যথাযথভাবে পূরণকৃত আবেদনপত্র (মোবাইল নম্বরসহ) ।

      ii. পাসপোর্ট সাইজের ২(দুই) কপি সত্যায়িত রঙিন ছবি ।

     iii. জমির দলিল অথবা নামজারীর কাগজ অথবা ভাড়ার চুক্তিপত্র অথবা পাওয়ার অফ এ্যাটোনি এর সত্যায়িত কপি ।

     iv. পূর্বে কোন স্থায়ী অথবা অস্থায়ী সংযোগ থাকলে সর্বশেষ পরিশোধিত বিলের ফটোকপি ।

 

খ) অন লাইনে যে সমস্ত কাগজপত্র জমা দিতে হবেঃ

 

     i. আবেদনকারীর ১ কপি (স্ক্যান) ছবি (মোবাইল নম্বরসহ) ।

    ii. জমির দলিল  অথবা নামজারীর কাগজ অথবা ভাড়ার চুক্তিপত্র অথবা পাওয়ার অফ এ্যাটোনি এর স্ক্যান কপি ।

   iii. জাতীয় পরিচয় পত্রের নম্বর এন্ট্রি দিতে হবে ।

 

গ) সকল প্রকার শিল্প (এলটি) সংযোগের ক্ষেত্রে  যে সমস্ত কাগজপত্র জমা দিতে হবেঃ

 

   i. আবেদনকারীর স্বাক্ষর সম্বলিত যথাযথভাবে পূরণকৃত আবেদনপত্র (মোবাইল নম্বরসহ) ।

  ii. পাসপোর্ট সাইজের ২(দুই) কপি সত্যায়িত রঙিন ছবি ।

  iii. জমির দলিল অথবা নামজারীর কাগজ অথবা ভাড়ার চুক্তিপত্র অথবা পাওয়ার অফ এ্যাটোনি এর সত্যায়িত কপি ।

  iv. পূর্বে কোন স্থায়ী অথবা অস্থায়ী সংযোগ থাকলে সর্বশেষ পরিশোধিত বিলের ফটোকপি ।

  v. ট্রেড লাইসেন্স অথবা শিল্প নিবন্ধন সার্টিফিকেট এর সত্যায়িত কপি ।

  vi. লে-আউট  প্লানের  কপি ।

 

‘‘১৫০ কেভিএ এর ঊর্ধ্বে সংযোগের জন্য গ্রাহকের আরও যে দলিলাদি দাখিল করতে হবে’’

 

*  পরিবেশ অধিদপ্তর হতে পরিবেশগত সনদপত্র জমা প্রদান করতে হবে।

*  পাওয়ার ফ্যাক্টরের মান ৯০% এ উন্নীত করনের জন্য প্রয়োজনীয় অটো পিএফ প্লান্ট স্থাপনের দলিলাদি।

সিঙ্গেল লাইন ডায়াগ্রাম।

*   প্রতিষ্ঠানের সকল বৈদ্যুতিক স্থাপনাদি এবং আভ্যন্তরীন ওয়্যারিং সমিতি কর্তৃক অনুমোদনের পর গ্রাহক কর্তৃক ট্রান্সফরমার ক্রয়ের টেষ্ট রেজাল্টসহ বাংলাদেশ বৈদ্যুতিক লাইসেন্সিং বোর্ড কর্তৃক চূড়ান্ত ভাবে অনুমোদনের ছাড়পত্র।

*  প্রতিষ্ঠানের আভ্যন্তরীন ওয়্যারিং পবিবোর্ডের ষ্ট্যান্ডার্ড মোতাবেক সমিতির অনুমোদিত ইলেকট্রিশিয়ান/ বৈদ্যুতিক লাইসেন্সিং বোর্ডের অনুমোদিত ইলেকট্রিশিয়ান/ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কর্তৃক স্থাপনের দলিলাদি জমা প্রদান করতে হবে।

*  সকল বৈদ্যুতিক স্থাপনাদির ওয়্যারিং ডায়াগ্রাম এবং কার্য সম্পাদনকারী ব্যাক্তি/প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্সের সত্যায়িত ফটোকপি জমা প্রদান করতে হবে।

 

নতুন সংযোগের জন্য আবেদন ফি (প্রতি মিটারের জন্য)

(ক) এলটি এক ফেজঃ   ১০০.০০ (একশত) টাকা ।

(খ) এলটি তিন ফেজঃ ৩০০.০০ (তিনশত) টাকা ।

(গ) এলটি এবং এইচটিঃ ১০০০.০০  (এক হাজার) টাকা ।

(ঘ) এমটিঃ২০০০.০০(দুই হাজার) টাকা ।

 

অস্থায়ী সংযোগের আবেদন ফি

(ক) এলটি এক ফেজ‍ঃ ২৫০.০০ (দুইশত পঞ্চাস) টাকা ।

(খ) এলটি তিন ফেজঃ ৫০০.০০ (পাঁচশত) টাকা ।

(গ) এলটিঃ ১০০০.০০ (এক হাজার) টাকা ।

 

ডিসেম্বর ২০১৭ হতে পুনঃনির্ধারিত খুচরা মূল্যহার এবঙ বিবিধ চার্জ/ফি নিম্নরুপঃ

 

                        ক. নিম্নচাপ (এলটি)ঃ ২৩০/৪০০ ভোল্ট

 

বিদ্যুৎ সরবরাহঃ নিম্নচাপ এসি সিঙ্গেল ফেজ ২৩০ ভোল্ট এবং তিন ফেজ ৪০০ ভোল্ট

ফ্রিকু্য়েন্সিঃ ৫০ সাইকেল/সেকেন্ড

অনুমোদিত লোডঃ সিঙ্গেল ফেজ ০-৭.৫ কি.ও. এবং তিন ফেজ ০-৫০ কি.ও.

          গ্রাহক শ্রেণী

 এনার্জি রেট/চার্জ (টাকা/কি.ও.)

ডিমান্ড রেট/চার্জ (টাকা/কি.ও.(অনুমোদিত লোড)/মাস)
০১ এলটি-এ‍ঃ আবাসিক   ২৫.০০
লাইফ লাইনঃ ০-৫০ ইউনিট ৩.৮৫
প্রথম ধাপঃ ০-৭৫ ইউনিট ৪.০০
দ্বিতীয় ধাপঃ ৭৬-২০০ ইউনিট ৫.৪৫
তৃতীয় ধাপঃ ২০১-৩০০ ইউনিট ৫.৭০
চতুর্থ ধাপঃ ৩০১-৪০০ ইউনিট ৬.০২
পঞ্চম ধাপঃ ৪০১-৬০০ ইউনিট ৯.৩০
ষষ্ঠ ধাপঃ ৬০০ ইউনিটের বেশি ১০.৭০
০২ এলটি-বিঃ সেচ বা কৃষি কাজে ব্যবহৃত পাম্প ৪.০০ ১৫.০০
০৩ এটি-সি ১ঃ ক্ষুদ্র শিল্প  

১৫.০০(২৫ কি.ও. পর্যন্ত অনুমোদিত লোডের গ্রাহকদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য)

২৫.০০(২৫ কি.ও. এর বেশির অনুমোদিত লোডের গ্রাহকদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য )

ফ্ল্যাট ৮.২০
অফ-পীক সময়ে ৭.৩৮
পীক সময়ে ৯.৮৪
০৪ এটি-সি ২ঃ নির্মাণ ১২.০০ ৮০.০০
০৫ এলটি-ডি ১ঃ শিক্ষা, ধর্মীয় ও দাতব্য প্রতিষ্ঠান এবং হাসপাতাল ৫.৭৩ ২৫.০০
০৬
এলটি-ডি ২ঃ রাস্তার বাতি, পানির পাম্প, ও ব্যাটারি চার্জিং স্টেশন
৭.৭০ ৪০.০০
০৭ এলটি-ইঃ বনিজ্যিক ও অফিস  
ফ্ল্যাট ১০.৩০ ৩০.০০
অফ-পীক সময়ে ৯.২৭  
পীক সময়ে
১২.৩৬
০৮ এলটি-অস্থায়ী ১৬.০০ ১০০.০০

 

                 খ. মধ্যমচাপ (এমটি)ঃ ১১কেভি ভোল্ট

 

বিদ্যুৎ সরবরাহঃ নিম্নচাপ এসি সিঙ্গেল ফেজ ২৩০ ভোল্ট এবং তিন ফেজ ৪০০ ভোল্ট

অনুমোদিত লোডঃ ৫০ কি.ও. থেকে সর্বাধিক ৫ মে.ও.

 

          গ্রাহক শ্রেণী

 এনার্জি রেট/চার্জ (টাকা/কি.ও.ঘ)

ডিমান্ড রেট/চার্জ (টাকা/কি.ও.(অনুমোদিত লোড)/মাস)
  এমটি-১ঃ আবাসিক  
০১ ফ্ল্যাট ৫০.০০
অফ-পীক সময়ে
পীক সময়ে
০২ এমটি-২ঃ বাণিজ্যিক ও অফিস ৫০.০০
ফ্ল্যাট
অফ-পীক সময়ে
পীক সময়ে
০৩ এমটি-৩ঃ শিল্প ৫০.০০
ফ্ল্যাট
অফ-পীক সময়ে
পীক সময়ে
০৪ এমটি-৪ঃ নিমার্ণ ৮০.০০
ফ্ল্যাট
অফ-পীক সময়ে
পীক সময়ে
০৫ এমটি-৫ঃ সাধারণ ৫০.০০
ফ্ল্যাট
অফ-পীক সময়ে
পীক সময়ে
০৬ এমটি-৬ঃ অস্থায়ী ১০০.০০

 

 

বিবিধ চার্জ/ফিঃ

 

গ্রাহককে সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে মিটার পর্যন্ত বাউন্ডারি পয়েন্ট বিবেচনায় সেবার বিবরণ এবং পূননির্ধারিত বিবিধ চার্জ/ফি (যা খুচরা বিদ্যুৎ মূল্যহারের অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসেবে বিবেচিত) নিম্নরুপঃ

বিদ্যুৎ সম্পর্কিত বিবিধ সেবার বিবরণ গ্রাহক শ্রেণী/প্রযোজ্যতা ফি/চার্জ (টাকা)
০১ নতুন সংযোগের আবেদন ফি এলটি ক) এক ফেজ ১০০.০০
খ) তিন ফেজ ৩০০.০০
এমটি এবং এইচটি   ১০০০.০০
০২

অস্থায়ী সংযোগের আবেদন ফি

এলটি ক) এক ফেজ ২৫০.০০
খ) তিন ফেজ ৫০০.০০
এমটি   ১০০০.০০
০৩ বকেয়ার কারণে সংযোগ বিচ্ছিন্ন (DC) চার্জ/বকেয়ার কারণে সংযোগ পুনঃ সংযোগ চার্জ (RC) এলটি ক) এক ফেজ ৬০০.০০
খ) তিন ফেজ ১৫০০.০০
এমটি এবং এইচটি   ৬০০০.০০
০৪ গ্রাহকের অনুরোধে সংযোগ বিচ্ছিন্ন (DC) চার্জ/গ্রাহকের অনুরোধে বিচ্ছিন্ন সংযোগ পুনঃ সংযোগ চার্জ (RC) এলটি ক) এক ফেজ ২০০.০০
খ) তিন ফেজ ৪০০.০০
এমটি এবং এইচটি   ১০০০.০০
০৫ গ্রাহকের অনুরোধে মিটার পরীক্ষা চার্জ এলটি ক) এক ফেজ ২০০.০০
খ) তিন ফেজ ৪০০.০০
গ)এলটিসিটি ৬০০.০০
এমটি এবং এইচটি   ১০০০.০০
০৬ গ্রাহকের অনুরোধে গ্রাহক আঙ্গিনায় মিটার পরিদর্শন চার্জ এলটি ক) এক ফেজ ১৫০.০০
খ) তিন ফেজ ৩০০.০০
গ)এলটিসিটি ৫০০.০০
এমটি এবং এইচটি ১০০০.০০
০৭ জরুরী প্রয়োজনে ট্রান্সফরমার ভাড়া(সর্বোচ্চ ১৫ দিন, তবে বিশেষ বিবেচনায় দ্বিগুন হারে ৩০ ‍দিন) ১১ কেভি ট্রান্সফরমার, ড্রপআউট ফিউজ কাটআউটসহ ৩০০.০০/দিন

 

 

 

 

‘‘এক অবস্থানে সেবা’’

 

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সদর দপ্তর/জোনাল অফিসে ’’এক অবস্থানে সেবা’’ কেন্দ্রে আপনার যে কোন অভিযোগ যেমন নতুন সংযোগ, বিদ্যুৎ বিভ্রাট, বিল সংক্রান্ত, মিটার সংক্রান্ত, পুনঃ সংযোগ সংক্রান্ত, বিল পরিশোধের ব্যবস্থা ইত্যাদি জানা যাবে এবং এতদসংক্রান্ত বিষয়ে তথ্য পাওয়া যাবে।

 

নতুন সংযোগ গ্রহন ঃ-

 

‘‘এক অবস্থানে সেবা’’ থেকে নতুন সংযোগের আবেদনপত্র পাওয়া যাবে।

আবেদনপত্রটি যথাযথভাবে পুরন করে নির্ধারিত সমীক্ষা ফি সমিতির ক্যাশ কাউন্টারে জমা করে জমা রশিদ ও আবেদনপত্রটি ’’এক অবস্থানে সেবা’’-এ জমা করলে আপনাকে আবেদনপত্রের ক্রমিক নং জানিয়ে দেয়া হবে।

৭ (সাত) দিনের মধ্যে সমিতি কর্তৃক সমীক্ষা সম্পাদন করা হবে।

সমিতি কর্তৃক সমীক্ষা সম্পাদনের পর পরবর্তী ৭(সাত) দিনের মধ্যে সমিতির কারিগরি উপদেষ্টা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক ষ্টেকিংশীট (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) প্রস্ত্তত করা হবে।

মালামাল প্রাপ্তি সাপেক্ষে ডিমান্ট নোট ও প্রাক্কলন ইস্যু করা হবে।

ডিমান্ড নোটে উল্লেখিত প্রাক্কলন সমিতির ক্যাশ কাউন্টারে জমা প্রদান করার পর ঠিকাদার কর্তৃক লাইন নির্মানের কাজ (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) সম্পন্ন করা হবে।

পরবর্তীতে সমিতির প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত ইলেকট্রিশিয়ান দ্বারা আভ্যন্তরীন ওয়্যারিং সম্পন্ন করে রিপোর্ট দাখিল করতে হবে।

ওয়্যারিং রিপোর্ট দাখিলের পর সমিতির ওয়্যারিং পরিদর্শক কর্তৃক ওয়্যারিং পরিদর্শন করা হবে।

ওয়্যারিং পরিদর্শনের পর বিলিং শাখা কর্তৃক সিএমও অর্থাৎ মিটার স্থাপনের অর্ডার তৈরী করা হবে।

সিএমও তৈরীর পর নিপর বিভাগ কর্তৃক মিটার স্থাপনের ব্যবস্থা করা হবে।

যে কোন কারনে সংযোগ প্রদান সম্ভব না হলে আবেদনকারীকে পত্রের মাধ্যমে অবহিত করা হবে।

মিটার স্থাপনের পরবর্তী মাসের বিলিং সাইকেল অনুযায়ী গ্রাহকের প্রথম মাসের বিল ইস্যু করা হবে।

 
বিল সংক্রান্ত অভিযোগ ঃ-

*  বিল সংক্রান্ত যে কোন অভিযোগ যেমন বিল পাওয়া যায় নাই, বিল হারিয়ে গেছে বকেয়া বিদ্যুৎ বিল, অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিল ইত্যাদির জন্য ‘‘এক অবস্থানে সেবা’’ এ যোগাযোগ করা হলে তাৎক্ষনিক সমস্যার সমাধান করা হবে।

*  কোন কারন বশতঃ যদি তাৎক্ষনিক সমাধান করা না যায় সেক্ষেত্রে দ্রুততর সময়ের মধ্যে নিস্পত্তির ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

বিল পরিশোধঃ-

‘‘এক অবস্থানে সেবা’’ সংলগ্ন সমিতির ক্যাশ কাউন্টার/নির্ধারিত ব্যাংকে গ্রাহক বিল পরিশোধ করতে পারবেন।

 

বিদ্যুৎ বিভ্রাটের অভিযোগঃ-

*  বিদ্যুৎ বিভ্রাট সংক্রান্ত আপনার যে কোন অভিযোগ সমিতির ‘‘অভিযোগ কেন্দ্রে’’ অথবা ‘‘এক অবস্থানে সেবা’’ কেন্দ্রে জানানো হলে তা অভিযোগ রেজিষ্টারে লিপিবদ্ধ করা হবে এবং পরবর্তী ২৪ ঘন্টার মধ্যে অভিযোগ নিস্পত্তির ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কোন কোন ক্ষেত্রে যদি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অভিযোগ নিস্পত্তি করা সম্ভব না হয় সেক্ষেত্রে তার কারন গ্রাহককে অবহিত করা হবে।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter